একটি গোলাকৃত ⚽বল
সৈয়দ খুকুরানী
এই সেদিন, ভোটের আগে
একটি বাচ্চা, নির্দোষ ফুলের মতো সুন্দর একটি বাচ্চা ,
গোলাকৃত একটি বলের মতো
দেখতে পেয়ে, খপ করে হাত দিয়ে বললো,
ওমা একটা বল পড়ে,,,,,,,,,,,,,,,
ওমনি দুম, ফটাস। ছততরখাই।
বারুদের আগুনে উড়ে গেল তার,
নরম তুলতুলে হাত, মুখে, সারা শরীরে চাপ চাপ লাল রক্তের ধারা গড়িয়ে পড়লো,,।
মা চেচিয়ে ফানা করে দিলো,
কি ভোট এলুগো,ও আল্লা,
আমার জাদু মরে গেলো গো।
ইয়া যেন, হাসান, হোসেনের যুদ্ধ গো,,,
ইয়া যেন আললা কারবালার যুদ্ধ গো,,,,,,,, ইয়া যেন মহরমের যুদ্ধ গো।
ইয়া যেন রাম, রাবনের যুদ্ধ গো,,,,,
ও আমার কি হোলু গো আললা,
আমার কোল খালি হয়ে গেল গো।
আমার সুনার জাদু, ও বাপ চোখ খুল বাপ গো।
এক সময়, ফুপিয়ে উঠলো লিয়াকত এর মা।
তাকে ঘিরে সকলে দাড়িয়ে আছে।
আর একদিকে মিছিল।
ভোট দিন। ভোট দিন।
মৃত লিয়াকত মায়ের কোলে নীরবে ঘুমিয়ে আছে।
আর নীরব লাশ হয়ে বলছে আমি, আল্লাহ কে সব বলে দেব, আমার বলের ভেতর তোমরা বারুদ ভরে দিয়েছো।
আমি সীতা কে বলে দেব,
তোমরা বড়ো যুদ্ধ লাগিয়েছো।
আমাদের আর নিশচিনতে খেলতে দাও না।
তোমাদের এই পচা, পৃথিবীতে তোমরা ও আমার মতো গলে পচে মরো।
আমি আললার কাছে গিয়ে সব বলে দেব।
মা বসুন্ধরা তোর বুক যারা কলুষিত করে, খালি করে
আর সহ্য করিস না মা,
দুনিয়া তামা করে দেয় মা।
ফানা করে দেয় মা বসুমতী।
আমার মায়ের মতো,
মরা লাশ নিয়ে আর চিললামিললি করে আর কাদিস না মা ধরিত্রী।

Spread the Kabyapot

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *