• Sat. Jun 25th, 2022

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় স্মরণে স্মারক সংখ্যায় শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণে : কবি – ঋদেনদিক মিত্রো

নায়ক সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় 
————————————–
  — ঋদেনদিক মিত্রো

বিংশ শতক ছিল অপূর্ব যুগ,  
সেই কল্পনা বয়ে আনে হিম-হিম অপূর্ব সুখ,
এলো স্বাধীনতা, 
সাদা -কালো সিনেমা ও পত্রপত্রিকা, 
সেই গ্রাম -গঞ্জ ও শহর কলকাতা, 
সেই বাংলা ও সেই ভারতবর্ষ, 
যত যাই অতীত চেতনা নিয়ে ভেসে 
             কত কী আলোছায়ার পাই স্পর্শ, 
সেই বাংলা,  সেই ভারতবর্ষ ! 

সে সময় তোমাদের কর্ম, 
কিংবা কারো হয়েছিল জন্ম, 
সেই শতাব্দী বা সহস্রাব্দকে নিয়ে যারা 
     হেঁটেছি কত পথ, 
তারা জানি সেই সব সুখ-দুঃখ মান অভিমান 
    কতখানি ছিল সুগভীর,  
       ইন্টারনেট ও ফাস্ট ফুড
         না আসার সময়ের চাহিদা ও শখ, 
       হেঁটেছি কত পথ !

সে সময় তুমি ছিলে সেরাদের মাঝে একজন, 
সিনেমাহল গুলিতে পড়ে যেত সাড়া, 
  তোমার নামেই মুগ্ধ হতো জনগণ,  
সেই সাথে কত কথা বাতাসে ঘোরা, 
সৌমিত্র তো সত্যজিৎ রায়ের-ই  হাতে গড়া,  

তুমি কী শুধু ছিলে তাই? 
     আরো বিস্তৃত ভূমিকায় —
তুমি ছিলে কবি,  দস্তুর মত বড় কবি, 
মাঝে -মাঝে ভাবি,  একাডেমি পুরস্কার 
     কেন পেলেনা তুমি কবিতায় !  

সেই সাথে দুরন্ত সব আবৃত্তি,  আঃ —
   কী কণ্ঠ তোমার ব্যাকরণ মেপে-মেপে 
       ধ্বনি বের হতো মুখে থেকে,
সেই সাথে মিষ্টি নম্র হাসি দিয়ে 
        দর্শকদেয়  তৃপ্তিকে নিতে তুমি দেখে, 

এক নৈঃশব্দিক আনন্দে প্রেক্ষাগৃহ 
               হতো তোলপাড়,  
তোমার দেহের স্বভাবে ছিল এক অদ্ভুত 
               বিনয়ের আকাশচুম্বী অধিকার ! 

আর ছিল নম্র মহৎ আচরণ, 
সব চেয়ে বড় কৃতি তাকে বলে —
   স্বভাবে যে সত্যি মনোরোম,  

সেই সাথে অসহ্য সব দুর্যোগে 
    কী করে থাকতে তুমি নির্বিকার হাসি,  
তুমি শুধু সিনেমার এক শ্রেষ্ঠ নায়ক নও, 
    জীবনের মাঝেও ছিলে আদর্শ নায়ক, 
      আমরা আজ কান্নায় ভাসি, 

তোমার কষ্ট গুলো ভাবি যখনি,  

জীবনের শেষ অধ্যায়ে পেলে 
    দাদা সাহেব ফালকে সম্মান, 
এ পাওয়া বিরল পাওয়া,  মানতেই হবে, 

যদিও তোমার সমগ্র জীবন পায়
                আলাদা মূল্যমান, 
তুমি ভালো মানুষ — এই পরিচয়ে, 

শুধু কি ভারতবর্ষ,

সারা পৃথিবীতে  বিদেশে বাঙালি ঘরে 
    তোমাকে নিয়ে হয় আলোচনা, 
        কী এক নীরব সুখের প্রত্যয়ে,  

কিংবা বিদেশির ফ্ল্যাটে 
   তারাও তোমাকে ভাবে 
       হলিউডি অস্কার জয়ীর মত 
           এক অভিনেতা,  

চোখের আড়ালে দূরে,  বহু -বহু দূরে 
    কে কথায় কাকে নিয়ে 
       কী আলোচনা করে,  যায় না দেখা,  

জীবনের সত্য টা এভাবেই বয়ে যায়, 

যে ভাবে মৃত্যুর পরেও
   মানুষের স্মৃতি হেঁটে যায় 
      মৃতের মৃত্যুহীন গুণের-ই তো সাথে, 

সে-খবর কজনে বা রাখে, 

তুমি আজ দূর থেকে শোনো, 
  হে প্ৰিয়  মানুষ,  স্মৃতিচারণ করছি তোমায়, 
     তুমি সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় !

============================


  ( 11:19 সকাল,  21নভেম্বর 2020,  Ridendick Mitro )

*** kabyapot.com পত্রিকার সম্পাদক  21 তারিখে সকালে আমাকে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় নিয়ে ১লা ডিসেম্বর তারিখে সংখ্যা করছেন,  সেই জন্য আমাকে লেখা চেয়ে পাঠানোয়,  সাথে -সাথে লেখা ! 

বিঃদ্রঃ :- ঋদেনদিক মিত্রো,  পেশায় কবি-ঔপন্যাসিক-গীতিকার,  ইংরেজি ও বাংলাভাষায় ( পৃথক ভাবে,  অনুবাদ নয় ),  এবং একটি বিশ্বজাতীয় সংগীত  ” World anthem — we are the citizen of the earth “,  ও  ” corona anthem 2020 official bengali song, ” ( আগ্রাসনের নেশার সাথে হিংসা সীমাছাড়া )  প্রভৃতি সংগীতের গীতিকার ! কলকাতা,  ভারত !

* কবিতাটি মুক্ত ঘূর্ণন ছন্দ মিশ্র পংক্তির অন্তমিলে লেখা !

Spread the Kabyapot

Leave a Reply

Your email address will not be published.