• Sat. Jun 25th, 2022

তুমি শ্বাস রোধ হয়ে কাঁদছ কেন নবাব – Ridendick Mitro

ByKabyapot

Jun 16, 2022


সংগীত ঃঃ  তুমি শ্বাস রোধ হয়ে কাঁদছ কেন নবাব
(Song:– Tumi Shwas rodh hoye kandcho keno Nawab– “Why are you crying out of breath,  oh Nawab / under the river Bhagirothi” / Ridendick Mitro. Its English frame existed not here, due to the easy read of the simple Bengalis.)
  ————————————–


ঋদেনদিক মিত্রো

তুমি শ্বাস রোধ হয়ে কাঁদছ কেন নবাব,
  ভাগীরথি নদীর জলে,৷
প্রিয় নবাব সিরাজ, তোমাকে তুলতেই 
আমরা নদীর পাড়ে এসেছি চলে,৷
তোমার সে সুন্দর হীরাঝিল প্রাসাদ
চলে গেছে কোন অতলে,
ভাগীরথি নদীর জলে।।

তুমি ডুবে আছো কোনখানে,৷
কজন বা তোমারই জীবনকে জানে,৷
প্রিয় নবাব সিরাজ,আমরা এসে 
সারা পৃথিবীর হাওয়াতে —
তোমাকে ছড়িয়ে দিলাম।  
হে সুন্দর আলো, নরম হাওয়া,
তোমার ইচ্ছেকে সারা পৃথিবীর কাছে
করছি নিলাম।
তোমায় যখন কেউ ভাবি,
মনে হয় সকালের রোদময় জানলাটা খোলে,
তুমি শ্বাস রোধ হয়ে কাঁদছ কেন নবাব,
ভাগীরথি নদীর জলে।।



সুন্দর চিরকাল জয়ী হয়।
সব প্রশ্নের উত্তর দেয় সময়, সময়,
প্রিয় নবাব সিরাজ, তাই তো তোমায়
এত ভালবাসি কেঁদে-কেঁদে।
আর খুঁজি তোমার স্মৃতি,
হে প্রতিবাদি, হে স্বাধীনতা প্রেমি, 
সুদীর্ঘ সময়েও বুঝিনি তো আমরা
তুমি — কত বড় কৃতি, 
তুমি নতুনের উজ্জলতা,
তোমায় নিয়ে কোনো কাজ যাবে না বিফলে,
তুমি শ্বাস রোধ হয়ে কাঁদছ কেন নবাব,
ভাগীরথি নদীর জলে।।

———————————————–
12:11  pm, 3rd June, 2022.
শিয়ালদা স্টেশনে বেঞ্চিতে বসে, ” হীরাঝিল বাঁচাও” Facebook — দেখার সময়।
——————————————— 
সম্পাদকের তরফে কিছু কথা
        ======>======
“তুমি শ্বাস রোধ হয়ে কাঁদছ কেন নবাব” –সংগীতটির theme হোলো,  নবাবের হীরাঝিল প্রসাদ ভাগীরথির জলে তলিয়ে গেছে, আর তার সাথে নবাবের অস্তিত্ব তলিয়ে গেছে, নবাব নদীর গভীরে শ্বাস নিতে পারছেন না। ছটফট করছেন। তাঁকে অনুভব-করা মানুষেরা চলে এসেছে নদীর পাড়ে তাঁকে উদ্ধার করার জন্য। কবি এইভাবে নবাবের অস্তিত্ব ও যন্ত্রনাকে অনুভব করেছেন। এবং অনুভব করেছেন, নবাবকে নিয়ে লাখ-লাখ মানুষের মনের অস্থিরতা।

ঋদেনদিক মিত্রো (Ridendick Mitro) কলকাতা, পেশায় ইংরেজি ও বাংলাভাষায় কবি, উপন্যাসিক, গীতিকার,  কলামনিস্ট, বহু গ্রন্থ প্রকাশিত ও আরও অনেক গ্রন্থ প্রকাশের পথে। নবাব সিরাজুদ্দৌলা নিয়ে মুর্শিদাবাদে আন্তর্জাতিক ভাবনা ও আন্দোলনে মুগ্ধ হয়ে এই নিয়ে কিছু কাজ করতে গিয়ে নিজের অজান্তে ক্রমশ গভীরে প্রবেশ করতে-করতে এখন শুধু নবাব কেন্দ্রিক বিষয়ের ওপর প্রায় ১০০০ (হাজার) পৃষ্ঠা  কাজ করেছেন,  কিছু প্রকাশিত ও বাকিগুলি প্রকাশের পথে। ইংরেজি ও বাংলা দুটোতেই রচনা। অনুবাদ নয়, মৌলিক। 


তাঁর এই কাজ করা হোতো না —  যদি না Manas Bangla — youtube চ্যানেলের দ্বারা ঘটনা ক্রমে অনুপ্রানিত হতেন, — ” লুৎফুন্নিসার কি পুনর্জন্ম হয়েছিল”/ Was Lutfunnisa Reborn”, এই youtube –এ কবি হঠাৎ একদিন ২০২১ সালে মাঝামাঝি ক্লিক করে দেখেন — কলকাতার বিখ্যাত সিরিয়াল অভিনেত্রী সমর্পিতা (Samarpita)-র সাথে Manas Bangla — youtube চ্যানেলের মালিক তথা গবেষক মানস সিংহ এর সাক্ষাতকার। ওটাই কবির চিন্তার মোড় ঘুরিয়ে দেয়। নবাব নিয়ে অনেক রকম প্রচারিত ভুল ধারনার জন্য কবি কোনোদিন নবাব নিয়ে লিখতে চাননি। বরং বিরক্তি প্রকাশ করতেন। কিন্তু ওই ইউটুব দেখেই নবাবের ইতিহাস নিয়ে কবির মনে ভাবনা বদলে যায়।   লুৎফুন্নিসার কি পুনর্জন্ম হয়েছিল” ইউটুবটি বেরোয় ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সালে। প্রায় এক বছর পরে এর viewers এখন প্রায় ২৩ (তেইশ)  লাখ পেরিয়েছে। ২০২১ সালে মাঝামাঝি হঠাৎ এটি দেখেই কবির ভাবনা বদলে যায়।

পরপর নানা পড়াশুনো,  Manas Bangla সহ আরো নানা কোম্পানির ইউটুব দেখা, ইত্যাদিতে মন দেন, কিন্তু Manas Bangla –র ওই youTube দেখেই নবাবের পরিধির ওপর ভাবনা বদলে যায়। ইতিহাসের ওপর লেখার দায়িত্ব বাড়ে। ইতিহাসের স্বাদ নেবার ক্ষমতা বাড়ে। কবি তাই জানিয়েছেন।  একই সাথে ঁহীরাঝিল বাঁচাও আন্দোলন ” এর ৫ ই ডিসেম্বর ২০২১ এ ভাগীরথি পাড়ে জনসমাগম ও পরে ওই আন্দোলন ইউটুবে দেখে মনের ভিতর চলতে থাকে বিপ্লব।

কারন, ওই সাক্ষাৎকার ও ওই আন্দোলন কবির চিন্তাকে নতুন দিকে এগিয়ে নিয়ে যায় ক্রমশ।

আশ্চর্য ব্যাপার হোল, নবাবের বিষয়ে মাত্র একটি কবিতা লিখতে চেয়ে পথে নেমে এতটা ব্যাপ্তিতে চলতে থাকলেন যে, তারপর জোয়ারের মত লেখা আসতে থাকল এই বিষয়ে, নানা প্রকরনে। রবীন্দ্রনাঘ ঠাকুর যেমন “সাহাজাহান”  কবিতা লিখেছিলেন, ঋদেনদিক তেমনি নবাবের ওপর একটা কবিতা লিখতে চেয়েছিলেন তখন, সময়ের ধারার সাথে মিলিয়ে নিজের মৌলিকতা দিয়ে। তখন ভাবেন নি,  পরপর প্রায় হাজার পৃষ্ঠা লিখে ফেলবেন এই বিষয়ে।

এদিকে গবেষক -সাংবাদিক মানস সিংহ এই কবিকে email-এ নানা ভাবে উৎসাহিত করতে থাকেন, কারন, কবির অনেক কাজ মানস বাবু দেখে ও পড়ে অবাক হন ও তাঁর প্রতিক্রিয়া কবিকে জানাতেন। নবাবের বিষয়ের বাইরেও অন্য নানা রচনা ছিল সেগুলি। একই সাথে সমর্পিতাও কবির নানা রচনা পড়ে মুগ্ধতা প্রকাশ করেন বলে মানস বাবু জানিয়েছিলেন কবিকে। যদিও এঁদের  কারোর  কন্ঠস্বরের সাথে কবি পরিচিত নয় এখোনো,  শুধু মানস বাবুর সাথে ইমেইলে কথা আদানপ্রদান। তাও কয়েক মাস অন্তর একবার করে। কারন, মানস বাবু এতোই ব্যাস্ত থাকেন যে, তিনি ঘুমের সময়ও পাননা। কবির কাছ থেকে এইগুলি জানলাম।  সমর্পিতাও ব্যাস্ত, অভিনেত্রী, classic film director, লেখিকা, সমাজ সংস্কারক, শিক্ষাবিদ, দার্শনিক, বিপ্লবি বক্তা, সুরকার,গায়িকা, গবেষিকা, ইত্যাদি বহু গুণে গুণী।

এদিকে সমর্পিতা তাঁর নির্মিত আন্তর্জাতিক চিন্তা সমৃদ্ধ পরিনত মনের নাগরিক গড়ে তোলার জন্য সব বয়সের স্কুল ” নবাব সিরাজুদ্দৌলা মুক্ত বিদ্যালয় খোসবাগ” -এর জন্য ও একই সাথে নবাবের কবরে বসে প্রার্থনার জন্য কবির লেখা ” নবাব সিরাজুদ্দৌলা মুক্ত বিদ্যালয় খোসবাগ / আমাদের তুমি গর্ব বাংলার শেষ স্বাধীন নবাব…” কবির লেখা সংগীতটি পছন্দ করে নিজে সুর দিয়ে ও গেয়ে গ্রহন করেন। সেটি Manas Bangla — YouTube এ প্রথম বেরোয় ৯-ই অক্টোবর ২০২১ ” নবাব সিরাজউদ্দৌলার হীরাঝিল প্রসাদে কে এই লুৎফুন্নিসা / Begum Lutfunnisa at Hirajhil Palace” — ইউটুবে। প্রার্থনা সংগীতটি আছে শেযের দিকে, যখন সমর্পিতা নবাবের কবরকে স্নান করিয়ে ফুল দিয়ে সাজিয়ে তাঁর কিছু ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে ওই সংগীত গাইছেন। এই ১৬ জুন ২০২২ তারিখ পর্যন্ত যার viewer প্রায় ৩ লাখ ৩০ হাজার ছুঁয়েছে।

প্রসংগত, সমর্পিতার স্কুলের ছাত্রছাত্রিরা এমন ভাবে বহুমুখি চিন্তা ও দেশবিশ্বমুখি বিস্তৃত দক্ষতায় গড়ে উঠছে, যা তাদের আন্তর্জাতিক নাগরিক হয়ে ওঠায় সাহায্য করছে। এই তথ্য জানলাম কবির কাছ থেকে। এই স্কুলের ছাত্রছাত্রিদের নাইট (Knight) বলে।

অন্য দিকে “হীরাঝিল বাঁচাও” ফেসবুকে কবিকে এই নবাব কেন্দ্রিক বিপ্লবের brand poet  এর মত একজন হিসেবে বিবেচিত করলে — কবি তা দেখে চমকে উঠে এই বিরাট দায়িত্ব বহন করতে আরো শত-শত পাতা লিখে ফেললেন এই বিষয়ে। অন্যদিকে এই ” হীরাঝিল বাঁচাও আন্দোলন ” এই বিষয়ে কবির লেখার গতিকে আরো প্রভাবিত করে। 

এই আন্দোলনের সাথে সক্রিয়ভাবে আছেন বাংলাদেশে থাকা শ্রদ্ধেয় নবাবের বংশধরগন। ফলে সমগ্র বিষয়টি আমাদের কাছে খুব রোমাঞ্চকর। নবাবের বংশধরগন অনেকে পৃথিবীর নানা প্রান্তে যাঁরা আছেন,  তাঁরাও এই আন্দোলন নিয়ে খুব সংবেদনশীল। এমন তথ্য আমাদের আরো আগ্রহী করেছে।

এ পর্যন্ত আমাদের জানা তথ্য অনুযায়ী, পৃথিবীতে এই রকম ইতিহাস রক্ষার ব্যাস্তময় বিপ্লব প্রথম, এটাই কবিরও বিশ্বাস, আমাদের বিশ্বাসও অনেকটা তাই। বিপরীত তথ্য পেলে আমরা তখন এই ধারনা বদলে নেবো।

আবার এটাও ঠিক, পৃথিবীতে কোনো ইতিহাস-কেন্দ্রিক বিষয় নিয়ে এত রচনা আর অন্য কোনো ইতিহাসকে কেন্দ্র করে হয় নি। তাও আবার একক রচনা। আবার ইংরেজি ও বাংলা ভাষায় রচনার জন্য এই রচনাগুলি সারা পৃথিবীর কাছে চলে যাচ্ছে। এই ঘটনার পর থেকে কবি দেশের এই জাতিয় অন্য ইতিহাসের প্রতি মনযোগী হন, এবং সেইগুলি নিয়ে পড়তে উৎসাহী হন।

নবাব সিরাজের ইতিহাসের ওপর ইংরেজিতে কবিতাগুচ্ছ পৃথিবীতে ঋদেনদিকের প্রথম রচনা। এবং কোনো ইতিহাসের বিষয়ের ওপর একক কোনো কবির এত রচনা বিশ্বে সাহিত্যের ইতিহাসে আর আছে কিনা আমরা জানিনা। যদি থাকে, সেই তথ্য আমরা জানতে আগ্রহী

এবং, এই জন্য এই আন্দোলনের সাথে থাকা সকলের কাছে কবি ঋণী।  আমরাও একই ভাবে ঋণী।

কবির মতে, ” হীরাঝিল ও খোসবাগ নিয়ে বৈপ্লবিক গতি দেশিয় ও বিশ্বে কাব্য সাহিত্যে নতুন অধ্যায় এনে দিল! কারন, এরপর থেকে আরো নানা কবি -সাহিত্যিক নানা আদলে কাজ করবেন।”

          —- সম্পাদক  — kabyapot.com

Brand: Luusa
4.1 out of 5 stars10,567Reviews
Luusa TFT-RX500 Kids / Baby Tricycle with Parental Control , Cushion seat and seat Belt for 12 Months to 48 Months Boys / Girls / Kids. Carrying Capacity Upto 30kgs ( Green )
#1 Best Seller in Trikes


Spread the Kabyapot

Leave a Reply

Your email address will not be published.