🏪ঠিকানা স্বাধীনতা🇮🇳
——————————— 
  — ঋদেনদিক মিত্রো  
    [ মুক্ত ঘূর্ণন ছন্দ,  মিশ্র পংক্তির অন্তমিল ]
স্বাধীনতা দিবসেতে স্বাধীনতা কই?  
জানালার পাশে বসে কাছে নাও একখানি বই, 
পাতা খোলো চুপচাপ, চেয়ে দেখো তায় — 
স্বাধীনতা উড়ছে তো বইয়ের লেখায় ,  
মাঝে-মাঝে চোখ দাও জানালায় —
কখনো কোনো পথিক দূরে হেঁটে যায়,  
বসেছে কোনো প্রাণী গাছের ছায়ায়,  
দইওলা হেঁকে যায়,  দই,  ভালো,  দই,  
এর নাম স্বাধীনতা,  অনুভবে-অনুভবে  
       তুমি আমি সকলেই সুগভীর হই,   
জানালার পাশে বসে উল্টে পাল্টে পড়া 
                           একখানি বই ! 
তাঁদের জীবনী পড়ো,  যাঁরা বিপ্লবী,  
পুরানো বইয়েতে দেখো তাঁহাদের ছবি, 
সেই সাথে পড়ে দেখো 
           ফেলে আসা সময়ের  
সাংবাদিক, দার্শনিক, বৈজ্ঞানিক, শিল্পী ও কবি, 
পুরানো বইয়েতে দেখো তাঁহাদের ছবি,  
সমাজ সংস্কারেও  আছে কত নাম,  
সমাজ সেবায় কেউ দিয়েছেন প্রাণ,  
তাঁদের জানাই হলো স্বাধীনতা-বোধ,  
     তখনি স্বাধীন তুমি,  তাঁদের স্মৃতির পাতা 
           খুলে দেখ যদি !  
পুরানো বইয়েতে দেখো 
      তাঁহাদের নিয়ে লেখা,  আর কত ছবি !  
পড়ো,  দেখো,  অনুভবে যাও গভীরে,  
মুক্ত চিন্তা দিয়ে  ঢোকো ধীরে-ধীরে —– 
  কত মানুষের কত কাজ,  অনুভূতি,  
  এসব ভাবতে থাকো তুমি চুপিচুপি,  
 তখনি তো মনে হবে — স্বাধীনতা ওই,  
জানালার পাশে বসে খুলে রাখা একখানি বই ! 
গাছের কোটরে বা — পাতার আড়ালে,  
পাখি বাসা বানিয়েছে কোনো শাখা-ডালে,  
তাদের কী উচ্ছাস,
                     কত কথা উল্লাস,   
এইসব দেখে যাও 
               স্বাধীনতা দিবসের এই সকালে !   
আরো দেখো পিঁপড়েরা হেঁটে যায় সারি হয়ে  
                      কাছে দেওয়ালে !  
কুকুর,  বেড়াল,  ছাগ,  আর পাখপাখি,  
খাবার জন্য ওরা করে ডাকাডাকি,  
কেউ বা নীরব থেকে দেখে যায় 
         মানুষের স্বার্থ ও চালাকি,   
ওদের যত্ন করো,  পাবে তুমি শান্তি,  
      তার নাম স্বাধীনতা,  তার নাম মুক্তি,  
      স্বাধীনতা মানে নয় 
         মানুষের অকাতর চাহিদার  পূর্তি,  
      স্বাধীনতা মানে হলো সব জীব ও প্রকৃতির  
                        অধিকারে দেবে সায়, 
     ওই যে ভিখারী যায় ক্ষুধার জ্বালায়  
         কাজের অভাবে বা অসুখের কারণেই   
         নিঃস্ব হয়েই সে শুধু কেঁদে যায়,  
সেও তো তোমার মত কোনো একজন,  
           তুমিও পারতে হতে তার-ই মতন,   
যদি তা ভাবতে পারো — তুমিই স্বাধীন,  
          তাকেই বাড়িয়ে দিও হাত,  
স্বাধীনতা মানে হলো — আমি সাহসী বিরাট,  
           আমি মুক্ত চক্ষু আর মুক্ত হৃদয়,  
যদি তা আমার থাকে , 
                    প্রতিটি পলকে করি জয় ! 
কখনো পুরানো চিঠি খুলে দেখে-দেখে,  
কখনো অশ্রু ঝরে হারানো দিনের স্মৃতি চেখে,  
           এর নামও স্বাধীনতা !
চিন্তা ও বুদ্ধির ক্ষিপ্রতা,  
      চেতনা ও মননের সিদ্ধতা,  
          অনুভবে আচরণে স্নিগ্ধতা,   
               তার নাম জেনো স্বাধীনতা ! 
থাকো তুমি কোনো দ্বীপে,  কিংবা বনে,  
থাকো তুমি গুহাতে,  কোনো নির্জনে,  
    সেখানে তো নেই কোনো স্বাধীনতা-শর্ত,  
    নেই তো সেখানে কোনো প্রাচুর্য,  অর্থ,  
    সেখানে নেই তো কোনো দেয়া-নেয়া চুক্তি,  
    যেখানে নেই তো কোনো  নাম, খ্যাতি,  উপাধির 
                       উল্লাস, স্ফূর্তি,  
  তবু কেন হও — সেখানেই তুমি সুখি আর ধন্য,  
      সেখানে হওনা তো কখনো বিষণ্ণ, 
আসলে সেখানে তুমি প্রকৃত স্বাধীন,  
         যেখানে হয়েছ তুমি মন থেকে মুক্ত,  
         যেখানেই বাঁচো তুমি সুস্থ !
         
পৃথিবীতে এই এতো গগনচুম্বি বাড়ি আলো ঝলমলে,  
       এতো কিছু নির্মাণ স্থলে আর জলে,  
       এতো কিছু হচ্ছে — দূরে আকাশে,  
   বিজ্ঞান নিয়ে আছি তুমি আমি ঘোর সন্ত্রাসে ! 
    
বিশ্বে প্রতিটি দেশ স্বাধীনতা দিবসেই 
     স্বাধীনতা চেয়ে তারা কাঁদে,  
স্বাধীনতা লেগে থাকে মুক্তির স্বাদে,  
      মুক্ত হৃদয়ে আর মুক্ত মনে,  
     স্বাধীনতা উল্লাস নয়,  
      স্বাধীনতা মানে হলো রাতের আকাশ-তারা 
                               দেখি নির্জনে ! 
স্বাধীনতা মানে নয় অকাতর চাহিদার স্বাদ,  
   স্বাধীনতা মানে হলো অন্যায়ে যদি তুমি  
                      করো প্রতিবাদ ! 
——————————————————- 
 (রচনাকাল  15 অগাস্ট,  2020,  স্বাধীনতা দিবস,  লক ডাউন,  Ridendick Mitro )
        
         
 
            
   
Spread the Kabyapot

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *