নদী

********

আসি আমি নদী তীরে
রোজ বৈকালে,
নদী ওই  ধীর লয়ে
দেখি বয়ে চলে ।

বলি আমি নদী তুমি
আমায় কি চেনো ?
বল দেখি রোজ আমি
হেথা আসি কেন ?

বলে সে যে আগেও তো
তুমি এসেছিলে,
বালু চরে কত খেলা
তুমি খেলেছিলে ।

খুঁজে যদি দেখ তুমি
পেয়ে যেতে পারো,
তোমার পায়ের ছাপ
কত কিছু আরো ।

কত জন এলো গেলো
যুগ যুগ ধরে,
বয়ে চলি আমি শুধু
স্মৃতি বুকে করে ।
        ______


সিংহ ও শিয়াল

**************

সিংহ ওই  গাছ তলাতে
একলা বসে চুপ,
দেখে শিয়াল বলে মামা
শরীর খারাপ খুব ?

সিংহ বলে  ভাগনে আজ
গা টা জ্বর জ্বর,
মাথায় ভারি করছে ব্যথা
বুকটা ধরপর ।

বাঁচবোনা আর বুঝি আমি
একটু দাও জল,
বলে শিয়াল মামা তোমার
জানি এসব ছল ।

আমায় তুমি এতই বোকা
ভাবো কেমন করে,
দিতে গেলে জলটা তোমায়
খাবে আমায় ধরে ।

বলছি  মামা তোমায় আমি
এতই যদি তেষ্টা,
সামনে নদী  অগাধ জল
একটু কর চেষ্টা ।

এখন আমি  আসছি তবে
টা- টা-  বাই বাই,
জানি তোমার বড্ড খিদে
অসুখ কিছু নাই ।
         ________


সর্ব নাশ

**********

বলেছিল কালিদাস
একদম খাঁটি,
বেশি দেরি নেই আর
হাতে নিতে বাটি ।

একে একে ধেয়ে আসে
সাইক্লোন ঝড়,
মধ্যবিত্ত গরীবের
ভাঙে শুধু ঘর ।

মিথ্যে কথা ঝুড়ি ঝুড়ি
আর আশ্বাস,
শেষ কালে দেখা যায়়
শুধু সর্বনাশ ।

বলির পাঁঠার মত
আমরাই আছি,
এই ভাবে কতদিন
আতঙ্কে বাঁচি !
      ______


মানুষ

**********

দেখে মানুষ  মনে যে হয়
ভুল তো করি আমরা,
রয়েছে কত পশু রে ভাই
গায়ে মানুষ চামড়া ।

মানুষ সেজে মানুষ ধরে
দিন রাত্তির খায় ,
ভীষণ খুশি হয় যে তারা
যদি গরীব পায় ।

চিনতে পারা কঠিন ভারি
কে বা মানুষ বন্য,
আমরা অবোধ মূর্খ অতি
ভাবতে পারি অন্য ?
          ________

বেঁচে আছি
 **********

বেঁচে আছি মিথ্যে আর
শুধু আশ্বাসে,
বেঁচে আছি মশা মাছি
আর ভাইরাসে ।

বেঁচে আছি বিষে আর
রাম জেডিতে,
বেঁচে আছি ধোঁয়া আর
ঝুল কালিতে ।

বেঁচে আছি বোমা আর
বারুদের গন্ধে,
বেঁচে আছি তোলাবাজি
আর শুধু দ্বন্দ্বে ।

বেঁচে আছি কুৎসিত
গান আর নাচে,
মুখে বলি ভাল আছি
সব ঠিক আছে ।
         _____

সাধ
******

করি আমি আকাশ কুসুম
অনেক কিছু কল্পনা,
শুনে সবাই বলবে জানি
মাথায় ছিট অল্প না ।

ইচ্ছে ভীষণ চাঁদে যাবার
কিম্বা ওই লাল গ্রহে,
কেন এলাম ধরার পরে
না জানি কার মোহে !

সাধ যে হয় দূর আকাশে
হরেক তারার সাথে,
বলবো আমি মনের কথা
ওদের নিঝুম রাতে ।

আবার আমার ইচ্ছে জাগে
মেঘের ভেলায় চড়ে,
ঘুরেই  বেড়াই  আনন্দেতে
সারা জীবন  ধরে ।

ভাবতে থাকি মাঝে মাঝেই
গোলক যেতে হবে !
দেখব গিয়ে দেবতাগুলো
নিরব কেন তবে !

স্বর্গের সিঁড়ি করতে গিয়ে
রাবন রাজা মরে,
ভাবি আমায় সেই কাজটি
যেতেই হবে করে ।

ভাবছো বুঝি তোমরা সব
পাগল আমি একদম,
কি আর করি চিন্তা এসব
মাথায় ঘোরে হরদম ।
        ________


ওলোট পালোট
*************

আম গাছে জাম ফলে
জাম গাছে বেল,
চোর সব সাধু  সাজে
সাধুগুলো জেল ।

পাখি সব সাঁতরায়
মাছ উড়ে চলে,
পড়াশোনা ঘরে বসে
স্কুলে তালা ঝুলে ।

মরুকাশে  জমে মেঘ
মিজোরামে বৃষ্টি,
সত্যি কথা লাগে ঝাল
মিথ্যে ভারি মিষ্টি ।

ওলোট পালোট আজ
সব কিছু ভিন্ন,
জঙ্গলে মানুষ থাকে
রাজ পথে বন্য ।
       ______

Spread the Kabyapot

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *