ফৈজুল বুঝলি রে ভাই
খগেন্দ্রনাথ অধিকারী
__________________
ফৈজুল বুঝলি রে ভাই,‌
ঠিক সেই একই রা,
কেতাব হাতেতে নিয়ে
মোল্লা বাবুরা যেমন
ইসলাম ‌বিপন্ন‌ বলে
হেঁকেছিল  জোরে,
তেমনি ভাবেই আজ
হিন্দু ধর্ম গেলো
তুলেছে সজোরে এরব
ব্রাহ্মণ ক্ষত্রিয় বৈশ্য
শূদ্ররা মিলে।
নতুন জামা না পেয়ে
সেবারে ঈদেতে যখন
বাচ্চা মেয়েটা তোর
কেঁদে ছিল অঝোরে,
মিঞা ভাই সেদিন কেউ
দাঁড়াইনি পাশে এসে
একটু দরদ নিয়ে ,
কিছু কাছে করে।
আমার দশাও তাই,
মূর্তি ভেঙেছে বলে,
রৈ রৈ হাঁকছে যারা,
ভুঁড়েল চেলারা সেসব
তূলো দিয়ে থাকে কানে,
যখন বাচ্চাটা আমার
খিদের জ্বলায় কাঁদে,
অষ্টমীর দুপুরে।
বাইবেল কোরান গীতা
যেটাই ভাবো‌না কেন,
নামেই ধারণ করে,
পীঠেতে না পড়লে বাড়ি,
ফেলে রাখে আদাড়ে।
আমাদের নেই তো জাত,
রাম রহিম কিংবা
কিষ্টো খিষ্টো ভেদ
দেখি না রে চোখে।
এখন বাতাসে শুধু
সনাতন রক্ষার ডাক,
সেভ মোমিন বোলতো
হুবহূ যেমন সুরে
রোহিঙ্গারা রেঙ্গুনে।
বাঁচাতে মানুষ বিশ্বে
লুঙ্গি ক্রুশচিহ্ণ,
কণ্ঠিমালা না ভেবে,
পেটে ভাত আছে কিনা 
সে বিচার ই আগে ‌‌।
গোলায় ভর্তি ধান,
সিন্ধুকভরা টাকা,
যে মালদের রয়েছে  ভাই,
তারাই বাধায় দাঙ্গা,
ঘি গালে আগুনে।
প্রীতির গঙ্গাজলে,
জমজমের পানির ছিটেয়,
আমরাই নেভানো শিখা,
জোট বাঁধি ,দেরী নয়,
নেমে পড়ি পথেতে‌।

74080cookie-checkকবিতা: ফৈজুল বুঝলি রে ভাই – খগেন্দ্রনাথ অধিকারী
Spread the Kabyapot

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *