“নবান্ন” 
    *হারাধন ভট্টাচার্য্য ।

মাটিতে পায়ের জলছাপ এঁকে
ঘরে গেছে কোন্ গৃহবধূ ।
এই হেমন্তে চারিদিকে ধান আর ধান
বাতাসে ধানের গন্ধ শুধু ।
প্রাণ চঞ্চল গ্রাম্য বধূর মতো
গা ‘য়ে যেন তার বিবাহের ঘ্রাণ
এ সুন্দরী বাংলা, সোনালী বাংলা
দেখে দেখে ভ’রে ওঠে প্রাণ ।
শান্ত দুপুর, স্তব্ধ দিঘি কালোজলে,
আলপনা আঁকে মেছো মাকড়সা,
খেজুরের ডালে দোলে দুটি পাখি
রস খায় তারা বেশ খাসা ।
খামারে, উঠানে, নতুন ধান  ,              
যেন,মুখরিত গ্রাম দিকে দিকে।
নবান্ন আসন্ন বাংলার ঘরে ঘরে
তারই বারতা শুনি পাখিদের  মুখে মুখে।
মাটির বাড়ি, নিখুঁত নিকানো উঠান
মাঝে মড়াই,পাশে তুলসী মঞ্চ,
ধবধবে উঠানে লক্ষ্মীরপদচিহ্ন
নিপুণ আলপনা আনে রোমাঞ্চ ।
গ্রাম আজ উঠে যাচ্ছে শহরে
অধিক সুখের আশায়,
ফেলে আসা গ্রাম আজ “দেশের বাড়ি”
তাদের শহুরে ভাষায় ।
তবুও আসুক নবান্ন বাংলার ঘরে ঘরে,
প্রাণ ভরে যাক গরম ভাতের গন্ধে,
সোনার বাংলা ভরে যাক ফসলে ফসলে
প্রাণ ভরে যাক উৎসবে-আনন্দে-ছন্দে ।

   **************সমাপ্ত**************
কবিতা ও গল্প লেখক।।
_________________×__________________

Spread the Kabyapot

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *