তোমার ধর্ম দেখতে কেমন?

বটু কৃষ্ণ হালদার

এক উন্মাদ,

 যার একমুখ সাদা কালো দাড়ি,পরনে ছেঁড়া জামা,বলতে গেলে অর্ধ উলংগ

এই সুবিশাল সভ্য পৃথিবীর রঙ্গ মঞ্চে দাঁড়িয়ে তর্জনী উঁচিয়ে জিজ্ঞেস করছে

তোমাদের ধর্ম খায় না মাখে?

সে দেখতে কেমন,সুন্দর না কুৎসিত?

কালো না ফর্সা?

এখানে দেখি ধর্মের বিবেকবোধ,মানবিকতা নিয়ে দড়ি টানাটানি খেলা

ধর্মের নামাবলী গায়ে হায়নারা,জোর করে মানুষদের দিচ্ছে হাড়িকাঠে গলায় দড়ি

কেউবা দেখি ধর্মের নামে শান্তির গীত গায়,

কেউ বা আবার ধর্মের,নামে হৃদপিণ্ড  ছিঁড়ে খায়

তবে মিল এখানে,তারা সবাই ধর্মের বুলি আওড়ায়।

তোমরা কি দেখেছো ধর্ম কখনো গুরুর জুতো চাটে?

হ্যাঁ আমি দেখেছি,ধর্মের নামে প্রকাশ্য দিবালোকে প্রতিবাদের গলা কাটে

ধর্মের নামে কুৎসা রটায়,হয় লুটপাট,নাবালিকার মুখ টিপে ধর্ষণ,

এক রত্তি প্রাণ কাতর যন্ত্রণায়,ভিক্ষা মেঙ্গে পার পায়নি

চোখের কোনায় ফোঁটা অশ্রু বিন্দু দেখেও,হায়নারা ছাড় দেয়নি।

যোনি পথ বেয়ে রক্ত বিন্দু গঙ্গায় সমর্পণ।

সেই গঙ্গায় হচ্ছে তোমার দুর্গাদের বিসর্জন।

বলতে পারো,ওই নাবালিকার এই পৃথিবীতে এটাই কি ছিল পাওনা?

সেও তো একদিন স্বপ্ন দেখেছিল শুধু মা হবে,সুপ্ত ছিল তাঁর বায়না।

আমার চোখে ধর্ম শুধু মানবতার জয়গান,

হিন্দু,মুসলিম,বৌদ্ধ,শিখ,চারি হাত,কবে হবে এক মণ এক প্রাণ?

74550cookie-checkকবিতা : তোমার ধর্ম দেখতে কেমন, কলমে : বটু কৃষ্ণ হালদার
Spread the Kabyapot

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *