এক যে ছিল সময় তখন
©অঞ্জলি দে নন্দী, মম
মহাকাশে এক যে ছিল জায়গা। তখন সৃষ্টি হয় নি বর্তমানের এই পৃথিবী। সেখানে ছিল আজকের এই পৃথিবীর মতই সমস্ত কিছু। মানুষের জীবনী শক্তি সঠিকভাবে কাজে লাগত তখন, সেথায়। তাই মানুষ খুব সুখী ছিল। তার মধ্যে একটি ছিল এরকম-
তখন ওখানে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ সকলে দেব ও দেবীগণের পূজো করত। একমাত্র পুজোর অধিকার তাদেরই ছিল। তারাই পুরোহিত। পূজারী। তখন সমাজে ব্রাম্ভন সম্প্রদায়ের উৎপত্তি হয় নি। তারাই বিবাহ, অন্নপ্রাশন ও অন্যান্য সমস্ত শুভ কাজ সম্পন্ন করাত।
এরকম মানুষ যখন বাবামায়ের সংসারে জন্ম নিত, তখনই তাদের সন্ন্যাসরূপে আশ্রমে থাকার জন্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হত। মাত্র দু বছর বয়স পর্যন্ত তারা তাদের মাবাবার কাছে থাকত। তারপর মাবাবাকেই সন্তানকে নিয়ে ওই আশ্রমে দিয়ে আসতে হত। ওই আশ্রমও তৃতীয় লিঙ্গের মানুষই চালাত। এখানে মানুষ লেখাপড়া, সঙ্গীত, নৃত্য, অঙ্কন, ক্রীড়া ইত্যাদি ইত্যাদি ইত্যাদি সকল বিষয় পারদর্শী হত। আর জীবিকা হিসেবে তারা পূজারী হত। তারা সারা জীবন ওই আশ্রমে থাকত। প্রচুর আশ্রম ছিল। তারা পূজো কাজের সাথে সাথে সাথে শিক্ষাকতা, খেলোয়াড়, গায়ক-গায়িকা, নৃত্যকেও জীবিকারূপে নিতে পারত। তাদের সারা জীবনের খরচা তারা এভাবেই চালাত।

Spread the Kabyapot

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *