একুশ
প্রদীপ চন্দ

===============
বাংলা মোদের মায়ের ভাষা,
মায়ের মুখে শোনা,
গাঁথলে সে হয় মুক্তমালা,
পাকলে ঝরে সোনা।
বাংলা আমার শীতল বাতাস,
মুক্ত খোলা আকাশ,
এই ভাষাতেই বলতো কথা,
রবি নজরুল সুভাষ।
এই ভাষা তে প্রাণ এর পরশ,
শুনতে মধুময়,
এই ভাষাতেই গীতাঞ্জলি,
করেছে বিশ্ব জয়।
হটাৎ আকাশে ঘনালো মেঘ,
হানাদার নির্বোধ,
চেয়েছিল ভাষা মুছে দিয়ে
করবে কন্ঠ রোধ।
দাঁড়াল রুখে বাংলা মায়ের,
দামাল যত ছেলে,
ছিনিয়ে আনলো ভাষার মান,
নিজের রক্ত ঢেলে।
রক্তাক্ষরে লেখা আছে সে
একুশে ফেব্রুয়ারি,
দুই বাংলার,ভাষা চেতনার,
শানিত তরবারি।
****         ****
একুশ মানে একই চেতনায়,
জেগে ওঠার অঙ্গীকার,
একুশ মানে রক্তের বিনিময়ে,
ছিনিয়ে আনা অধিকার।
একুশ মানে ভাষার অর্থে,
কোন আপস নয়,
একুশ মানে দীপ্ত শপথ,
রুখে দেওয়া অন্যায়।
একুশ মানে মুক্ত আকাশ,
মুক্ত পাখির গান,
একুশ মানে রক্ত ঝরা,
রমনার ময়দান।
একুশ মানে ভাষা শহীদ,
বরকত জব্বার সালাম,
একুশ মানে দৃঢ় প্রতিরোধ,
প্রত্যয় অবিরাম।
একুশ মানে স্বপ্ন নীল ছায়া,
শীতল সমীরণ,
একুশ মানে মাতৃ ভাষার,
সাদর সুরক্ষণ।
একুশ মানে  বিশ্ব সভায়,
জাতির অহংকার,
একুশ মানে বাংলা মায়ের,
বৈভব অলংকার।
একুশ মানে শহীদ দিবস,
বিনম্র স্মরণাঞ্জলি,
একুশ মানে হৃদয়ে ধারণ,
শহীদের স্বপ্নগুলি।
একুশ দিয়েছে বিশ্ব সভায়,
বাংলার সম্মান,
একুশের চেতনায় জেগে ওঠে বিশ্ব,
ভাষা দিবস মহান।
****  //  ****  //  ****  //  *****

Spread the Kabyapot

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *