কবিতা: পথের নিশানা
কবি : প্রতিম ভট্টাচার্য

কত রাস্তা বিভক্ত হয়েছে সেই সবুজ নদীর পাড়ে
সূর্যমুখী বিষন্ন হয়ে খুঁজে যায় তার সাথীর হদিশ
ভেবে যায় সে একক হতে,
কিভাবে অতিক্রম করবে সকল পদ
নিশানা করি আমি যতদূর চোখ যায়
তাও তো সব জায়গায় দেখি শুধু স্রোতের হাতছানি
প্রকৃতি যে টেনে নিয়ে গেল আমাকে রহস্যের সন্ধানে
কাগজের নৌকা ভেঙে খুঁজে পেলাম রক্ত পিপাসায় পাগল রাক্ষসের হদিশ
হাজার হাজার পদ অতিবাহিত হয়,
তার কোনো শেষ নেই আজও
কাগজের নৌকা ভেসে চলে ঈগলের দেওঘরে
কুয়াশার বহুরূপীর খেলার ছলে
খুঁজে পায় নিজেকে নতুন করে
বল সব চলে যাবে কাগজের নৌকার মত,
তাকে আমরা আটকাবো কেমন করে
ইতিহাসের খেলা থেকে বেরিয়ে
খোকার রাজত্ব হলো ধ্বংস
কাগজ কি কোনভাবে তাকে বাঁচাতে পারত ?
হলুদ রঙের আভা তো সব জায়গায় আছে
পিশাচিনীর খেলা বুঝতে পেরে
বেরঙিন কলম ফুটে ওঠে রক্তের আকাশে
নবজাগরণ থমকে দাঁড়ায় তার কাছে
পথ হয়ে যায় নিস্তব্ধ, সব ছবি ফেলে সে পালিয়ে মারছে আজ তো
এইতো জীবনের অপরূপ গান
যদি বাঁচতে চাও তাহলে হতে হবে সাবধান।

Spread the Kabyapot