KABYAPOT.COM

ধারাবাহিক পৌরাণিক কাব্য কুরুক্ষেত্রে আঠারো দিন। । কলমে : কৃষ্ণপদ ঘোষ




ধারাবাহিক পৌরাণিক কাব‍্য:–
* কুরুক্ষেত্রে আঠারো দিন *

—— কৃষ্ণপদ ঘোষ।
উপস্থাপন–৭
( পূর্ব প্রকাশিতের পর )

* সপ্তম দিনের যুদ্ধ *
(বিরাট পুত্র শঙ্খের মৃত্যু,
ইরাবান ও নকুল সহদেবের জয়)

হইয়া রক্তাক্ত দেহ চিন্তাকুল মন,
ভীষ্ম পাশে দুর্যোধন করেন গমন।।
কহিলেন তিনি সেথা ভীষ্ম পিতামহে,
নিপীড়িত কৌরব সেনা কৌরব ব‍্যূহে।।
নিপীড়নে হৃষ্ট তারা পাণ্ডুপুত্র গণ,
আনন্দে নৃত্য রত পাণ্ডব সেনাগণ।।
ভেদিল মকর ব‍্যূহ আজি পাণ্ডবে,
অতি ঘোর ভীষণ রণ রণিল সবে।।
ব‍্যূহ মাঝে ভীম হস্তে আমি পরাজিত।
হেরি ক্রোধ তার আমি সেখানে মূর্ছিত।।
মম মনে আজি কোন শান্তি নাহি রয়।
বধিয়া পাণ্ডবে যেন লভি আমি জয়।।
ভীষ্ম কহেন বৎস না রাখি গোপন,
তোমারে করিতে জয়ী ইচ্ছা সদা মন।।
কিন্তু জেনো বাসুদেব যাঁদের সহায়,
ত্রিভুবনে কেহ নাহি তাঁদের হারায়।
তথাপি করিব চেষ্টা আমি প্রাণপণ।
যথাসাধ‍্য চেষ্টা মোর থাকিতে জীবন।।
তব কথা মনে রাখিব করিয়া ধারণ।
হয় জয় নতুবা জীবন বিসর্জন।।
*
রচেন মণ্ডল ব‍্যূহ ভীষ্ম মহামতি।
বজ্র ব‍্যূহ রচেন পাণ্ডব সেনাপতি।।
অর্জুন পরাক্রম হেরিয়া দুর্যোধন,
স্বপক্ষ রাজকুলে ডাকিয়া তিনি কন,
ভীষ্ম করেন রণ করি জীবন পণ,
তাঁহারে করুন রক্ষা সকলে এখন।।
রাজগণ করি শ্রবণ তাঁহার আদেশ,
ভীষ্ম সকাশে করেন সেনা সমাবেশ।।
দ্রোণ বিরাট উভয়ে শরযুদ্ধে রত।
শরাঘাতে বিরাটের অশ্ব সারথি হত।।
অতঃপর ত‍্যজি রথ বিরাট তখন,
পুত্র শঙ্খের রথে করেন আরোহণ।।
ত‍্যজিলেন দ্রোণ এক আশীবিষ বাণ,
শঙ্খ পতিত ভূতলে হারায়ে সে প্রাণ।।
এতেক হেরি বিরাট হইলেন ভীত।
কালান্তক দ্রোণে ত‍্যজি তিনি পলাইত।।
সাত‍্যকি ঐন্দ্র বাণ করেন নিক্ষেপন,
সেই বাণে অলম্বুষ করে পলায়ন।।
দুর্যোধন অশ্ব হত ধৃষ্টদ‍্যুম্ন বাণে,
নিজ রথে শকুনি তোলেন দুর্যোধনে।।
অবন্তি রাজপুত্র বিন্দ, অনুবিন্দ সনে,
অর্জুন পুত্র ইরাবান মাতিলেন রণে।।
অনুবিন্দের চারি অশ্ব হইলে পতন,
বিন্দ রথে তিনি করেন আরোহণ।।
বিন্দের সারথি হত ইরাবান বাণে,
অশ্ব ছোটে নানা দিকে দিশা নাহি মানে।।
ভগদত্ত রণিছেন ঘটোৎকচ সনে,
পরাস্ত ঘটোৎকচ বাধ্য পলায়নে।।
নকুল ও সহদেব ভ্রাতা দুইজনে,
করেন যুদ্ধ তাঁরা মাতুল শল‍্য সনে।।
ছিন্ন ধনু রথধ্বজ শল‍্য শরাঘাতে,
ভীত সন্ত্রস্ত নকুল ভগ্ন ধনু হাতে।।
রথাশ্ব সারথি মরে পরবর্তী বাণে।
হেরি তাই সহদেব ব‍্যথা পান প্রাণে।।
দ্রুত তাঁরে নিজ রথে করেন তোলন।
অতঃপর শল্য সকাশে করেন গমন।।
দোঁহে চলে অতি ভীষণ মারণ রণ।
সহদেব বাণে শল‍্য হন অচেতন।।
হেন হেরি শল্য সারথি হইল ভীত।
ত্বরিতে লইয়া রথ হইল পলাইত।।
করেন যুদ্ধ কৃপাচার্য চেকিতান সনে,
নষ্ট রথ দোঁহাকার ভয়ঙ্কর বাণে।।
চলে রণ বহু ক্ষণ ভূমে খড়্গ ঢালে।
খড়্গাঘাতে মূর্ছিত দোঁহে পড়ে ভূতলে।।
শকুনি ব‍্যস্ত কৃপাচার্যে রথে তোলনে,
শিশুপালপুত্র ব‍্যস্ত চেকিতান তোলনে।।
ভীষ্ম শিখণ্ডী ধনু করিলে ছেদন,
ক্রুদ্ধ যুধিষ্ঠির তখন শিখণ্ডীরে কন,
পিতার সমুখে তুমি করেছিলে পণ,
ভীষ্মে তুমি একদিন করিবে হনন।।
পালন কর পণ হ’য়ো না মোহবশ,
রক্ষা কর কুল মর্যাদা স্বধর্ম যশ।।
ভ্রাতা বন্ধু ছাড়ি কর কোথায় গমন ?
বীর তুমি, তবে কেন ভয়ে পলায়ন ?
যুধিষ্ঠির ভর্ৎসনায় শিখণ্ডী লজ্জিত,
ভীষ্ম প্রতি পুনঃ হইলেন ধাবিত।।
আগ্নেয়াস্ত্র তাঁর শল‍্য করেন ক্ষেপন।
বরুণাস্ত্রে শিখণ্ডী তা করেন নিবারণ।।
অতঃপর ভীষ্ম সকাশে করেন গমন।
উদাসীন ভীষ্ম স্ত্রীত্ব করিয়া স্মরণ।।
সূর্যাস্ত হইল ক্রমে নামিল আঁধার।
গমিলেন সকলে শিবির যে যাহার।।
(ক্রমশঃ)

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: