কবিতা : শৌভিক


          “সে “
                        ✍️শৌভিক✍️ 
পৃথিবীতে প্রথম এসেছিল
ভোরের আলো যে পথে –
আমার সহস্র ধূসর রাত্রি শেষে
প্রিয়ভাষিণী এসেছিল সেই পথে !
এসেছিল সে নিঃশব্দে  
অঘ্রাণের হাওয়ার মত ।
অতল দীঘি কালো চোখের তারা
অচঞ্চল আমি প্রথম দিশাহারা ! 
সময় তখন আমার অবিন্যস্ত
হরালাম নিজেকে কয়েক মুহূর্ত !
আমার দুনিয়া বুঝি ছিল
তার আসার আশায় আবর্ত ! 
হলো নিশিদিন কাজে ভুলভাল –
মন হারালো কোন সে শীতকাল ! 
ভীষণ অভিমান তার
কত রাত একলা খুঁজেছি বারবার
দোষ টা কি ছিল আমার ! 
পরের দিন বলেছে সে হেসে –
কিছু মনে করনি তো ?
এমনই আমি, বাবু তুমি জানোতো ! 
তাকে ছুঁয়েছে এই মন যতবার
ধ্যানস্ত হয়েছে বার বার ! 
তখন জ্যোছনা নেমেছে মনে –
শরৎ হেমন্ত কিংবা ফাল্গুনে !
একদিন সকলই যাবে হারিয়ে
পৃথিবীতে মরা দিনপঞ্জী গুলি
শুধু একা জেগে রবে। 
তখন এক ঘন অন্ধকার –
নিবিড় কুয়াশায় বইবে হাহাকার !
সেদিনও হয়তো কোন মেয়ে
করবে প্রশ্ন অখ্যাত কবির
ধূলিমাখা পুরাতন ছবির পানে চেয়ে –
কে ছিল কবির প্রিয়ভাষিণী ? 
সেদিন যদি গাছের ঝরা পাতা
পাও হে একাকিনি –
তবে একটু ভালোবেসো।
জেনো প্রিয়ভাষিণী এক পরী
কবির অধরা মাধুরী
সে এসেছিল কবিতা হয়ে
এই অখ্যাত কবির হৃদয়ে –
অনেক দিন আগে, কবি গেছে তলিয়ে
তোমাদের সকলের বিস্মৃতির অতলে।
প্রিয়ভাষিণীরা শুধুই কবিতা হয়ে-  আসে অনন্তকাল ধরে !

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.